কোটা ইস্যুতে রোববার সুপ্রিম কোর্টে শুনানি, আশা করি সমাধান আসবে কারফিউয়ের সময়সীমা আরো বাড়ল কারফিউ প্রত্যাহার দাবি বিএনপির, আমির খসরু আটক কোটা আন্দোলনে কারফিউয়ের দিনেও ঢাকাতে ১০ জনের মৃত্যু বাংলাদেশের ছাত্রদের প্রতি সংহতি পশ্চিমবঙ্গে কোটা নিয়ে আপিল শুনানি রোববার চট্টগ্রাম ও রাজশাহী শহরের পরিস্থিতি নরসিংদীর কারাগারে হামলার পর পালিয়েছে আট শতাধিক আসামী শনিবার ঢাকায় কারফিউ-র যে চিত্র দেখা যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর দুই বিদেশ সফর বাতিল বিএনপি নেতা নজরুল ইসলাম খান আটক সরকারের কাছে 'আট দফা দাবি' কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের: ‘শাটডাউন’ কর্মসূচি চলবে নুরুল হক নুরকে আটক করা হয়েছে নাহিদ ইসলাম এখন কোথায়? হাইকোর্টের রায় বাতিল চাইবে রাষ্ট্রপক্ষ: অ্যাটর্নি জেনারেল শনিবার সহিংসতায় মৃত্যু হয়েছে আরো অন্তত সাত জনের কখন ফিরবে ইন্টারনেট সংযোগ - কেউ জানে না রোববার ও সোমবার সাধারণ ছুটি ঘোষণা কারফিউ দিনে ঢাকায় যে চিত্র দেখা গেছে সাতক্ষীরায় ছাত্রদল নেতার ইন্ধনে থানা ঘেরাওয়ের চেষ্টা!

লালপুরে সাংবাদিকদের ক্যামেরা কেড়ে নিয়ে গালিগালাজ করলেন যুবলীগ নেতা

নাটোরের লালপুরে পেশাগত দায়িত্ব পালনের সময় সাংবাদিকদের ধাক্কা মেরে, লাঞ্চিত করে, ক্যামেরা ও ফোন কেড়ে নিয়ে গালিগালাজ করেছেন লালপুর উপজেলা যুবলীগের ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক ও লালপুর পাইলট বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষক কাইকোবাদ হোসেন (৪০)। মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলার গৌরীপুর মোড়ে এ ঘটনা ঘটে। এ বিষয়ে বুধবার লালপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করা হয়েছে। যার নম্বর ৩২৪, তারিখ ০৭/০৯/২০২২।

ডায়েরী ও ভুক্তভুগী সাংবাদিকরা জানান, মঙ্গলবার বিকেলে গৌরীপুর এলাকায় বিএনপির দ্রব্য মূল্যের উর্ধগতি ও রাজনৈতিক হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে পূর্ব নির্ধারিত সমাবেশ ও বিক্ষোভ  মিছিলের প্রোগ্যাম ছিল। আবার বিএনপির প্রোগ্রাম এর বিরুদ্ধে আওয়ামীলীগের নেতা কর্মীরা একই সময়ে গৌরীপুর মোড়ে অবস্থান নেয়। এ সময় দৈনিক জনকন্ঠের লালপুর সংবাদদাতা শাহ আলম সেলিম, দৈনিক চলন বিলের খবরের লালপুর প্রতিনিধি আতিকুর রহমান, দৈনিক বিজয় বাংলাদেশের লালপুর প্রতিনিধি সজিবুল হৃদয়সহ কয়েকজন সাংবাদিক লালপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম জয়ের সাক্ষাতকার নিচ্ছিলেন। এমন সময় লালপুর উপজেলা যুবলণীগের ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক ও লালপুর পাইলট বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষক কাইকোবাদ হোসেন এসে ছবি ও ভিডিও ধারনে সাংবাদিকদের বাধা দেয় এবং  তাদের হাতে থাকা ক্যামেরা ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়। এর পরে উক্ত সাংবাদিকদের ধাক্কা দিয়ে সরিয়ে দেয়। পরে অবশ্য ছিনিয়ে নেয়া ক্যামেরা ও মোবাইল ফোন ফিরিয়ে দেয়। এ ঘটনায় উপজেলার সাংবাদিকরা তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন এবং অবিলম্বে ওই নেতার বিচার দাবি করেছেন।

Tag