শেষ পর্যন্ত দর্শকশূন্য মাঠেই হচ্ছে বিপিএল ৬ বছরেও বেসিকের মামলার তদন্ত শেষ করতে দুদক ‘ব্যর্থ’: হাইকোর্ট সিআইপি কার্ড পেলেন ১৭৬ ব্যবসায়ী খানজাহানের বসতভিটা খননে বেরিয়ে আসছে বহু পুরোনো প্রত্নবস্তু আইপিটিভি ও ইউটিউবে সংবাদ প্রচার করলে ব্যবস্থা শেষ হলো তিনদিনের ডিসি সম্মেলন পল্লবী থানার ওসিসহ ১৭ পুলিশের বিরুদ্ধে মামলার আবেদন দুর্ঘটনা রোধে মহাসড়কে গাড়িতে থাকবেন দু’জন চালক! নিউইয়র্কে চোখের পলকে গাড়ি চুরি শিক্ষার্থীদের ইউনিক আইডির জন্য ৪ নির্দেশনা মার্কিন ফেডারেল কোর্টের বিচারপতি হলেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত নুসরাত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হলেই সাংবাদিককে গ্রেফতার নয়, ডিসিদের আইনমন্ত্রী দুর্নীতি রোধে ডিসিদের সহযোগিতা চাইলো দুদক ব্যাংকারদের সর্বনিম্ন বেতন বেঁধে দিলো কেন্দ্রীয় ব্যাংক র‌্যাবের প্রতি অবিচার হচ্ছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ চা উৎপাদন এমপিওভুক্ত হলেন ২২৭৮ শিক্ষক-কর্মচারী শান্তিরক্ষা মিশনে র‌্যাবকে নিষিদ্ধের দাবিতে ১২ সংস্থার চিঠি পাকিস্তানে ব্যস্ত বাজারে বোমা বিস্ফোরণ, নিহত ৩ ২৪ লাখ টাকা আত্মসাৎ: দুই কাস্টম কর্মকর্তা কারাগারে

বাইডেনকে এড়িয়ে গিয়ে যে বার্তা দিলেন সৌদি যুবরাজ

জামিল আহমেদ - দেশচিত্র নিউজ ডেস্ক

প্রকাশের সময়: 24-11-2021 22:41:07

Photo caption :

গত ৩০ বছরের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে মুদ্রাস্ফীতি সর্বোচ্চ আকার ধারণ করেছে। দেশটিতে ধনী ও গরীবের মধ্যে বিভেদ বাড়ছে। প্রতিদিনই বাড়ছে পেট্রোলের দাম। রাজনৈতিকভাবে হোয়াইট হাউসের জন্য তেল একটি বিষাক্ত ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই পরিস্থিতিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন যে গভীরভাবে হতাশ হবেন তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। 


এরই মধ্যে বিশ্বের অন্যতম তেলসমৃদ্ধ দেশ সৌদি আরব জো বাইডেনকে এড়িয়ে চলছে বলে মার্কিন সংবাদ সংস্থা ব্লুমবার্গের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। 


গত অক্টোবরে বাইডেন জানিয়েছিলেন, রাশিয়া এবং সৌদি আরবের মতো প্রধান তেল উৎপাদক দেশগুলো যে আরও তেল উত্তোলন করছে না এই বিষয়টি একদমই ঠিক হচ্ছে না। 


এই বিষয় নিয়ে অবশ্য প্রথমে ব্যক্তিগতভাবে পরে প্রকাশে মার্কিন কূটনীতিকরা সৌদি আরবকে আরও তেল উত্তোলনের ব্যাপারে বোঝানোর চেষ্টা করেছিলেন। সৌদি এবং মার্কিন, দুপক্ষের কর্মকর্তারাই বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।  


কূটনৈতিক চাপটি শেষ পর্যন্ত ৩৬ বছর বয়সী একজনের দিকে যাচ্ছিল, যার রয়েছে তেলের মূল্য পরিবর্তন করার ক্ষমতা এবং যার ইচ্ছার উপর নির্ভর করছে ভোক্তা দেশগুলোর রাজনীতিবিদদের ভাগ্য; তিনি সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান। 


তবে মার্কিন কূটনীতিকদের চাপের মুখেও নমনীয় হননি তিনি। প্রিন্স সালমান ওয়াশিংটনের রাজনৈতিক চাহিদার চেয়ে তেলের সরবরাহ ও চাহিদার মতো মৌলিক বিষয় নিয়ে বেশি চিন্তিত। তবে বাইডেন যদি সস্তায় পেট্রোল চাইতেন, তাহলে তাকে ক্রাউন প্রিন্সের চাহিদার তালিকাও পূরণ করতে হতো। প্রিন্স সালমানের চাহিদার মধ্যে এমন বিষয় রয়েছে যা তিনি বাইডেন প্রশাসনের তরফ থেকে পাননি। হোয়াইট হাউসের তরফ থেকে কোনো যোগাযোগ করা হয়নি প্রিন্স  সালমানের সঙ্গে।


ক্ষমতা গ্রহণের পর থেকে বাইডেন প্রিন্স সালমানের বাবা কিং সালমানের সঙ্গে কথা বলেছেন। বাইডেন সরাসরি ক্রাউন প্রিন্সের সঙ্গে কোনো চুক্তিতে যেতে অস্বীকার করেছেন বলে ব্লুমবার্গ জানিয়েছে। ২০১৮  সালে ওয়াশিংটন পোস্টের কলামিস্ট জামাল খাশোগিকে হত্যার পর থেকে প্রিন্স সালমানকে এখনও যুক্তরাষ্ট্রে একজন আগন্তুক হিসেবে মনে করা হয়। 


বাইডেনের কথাতেও এর ইঙ্গিত মিলেছে। গত অক্টোবরে কারো নাম উল্লেখ না করে বাইডেন জানিয়েছিলেন, মধ্যপ্রাচ্যের অনেকেই আমার সঙ্গে কথা বলতে চায়। তবে তাদের সঙ্গে কথা বলল কী না সে ব্যাপারে আমি নিশ্চিত নই। 


এই কারণে স্বভাবতই বাইডেন অতিরিক্ত তেল পাননি। বাধ্য হয়ে মঙ্গলবার দেশের তেল মজুদে হাত দিতে হয়েছে বাইডেন প্রশাসনের। যদিও বাইডেন প্রশাসনের তরফ থেকে বলা হচ্ছে তেলের দাম কমাতে নিজেদের মজুদ থেকে তেল বাজারে ছাড়ছে যুক্তরাষ্ট্র। 


Tag