কৃষ্ণনগরের রহমতপুর নূরানী মাদ্রাসার এক যুগ পুর্তিতে পুনর্মিলনী ও প্রীতি সমাবেশ অনুষ্ঠিত কোটবাজারে পাবলিক টয়লেট তালাবদ্ধ থাকায় লোকজনকে ভোগান্তিতে দেখার কেউ নেই। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ঝোড়ো হাওয়াসহ বজ্র বৃষ্টির সম্ভাবনা সাম্প্রদায়িকতা রুখে দেয়ার প্রত্যয়ে নববর্ষবরণ উৎসব উদযাপিত লক্ষ্মীপুরে চোর অপবাদ দিয়ে স্কুল শিক্ষককে পিলারের সাথে বেঁধে বর্বর নির্যাতন, হাসপাতালে ভর্তি কক্সবাজারে হোটেলে কক্ষ না পেয়ে সৈকতে রাত কাটাচ্ছেন পর্যটকরা নববর্ষে শিক্ষার্থীদের শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করলো রামুর রম্য খেলাঘর কচুয়ায় নাগরিক সংবর্ধনা ও গুনীজন সন্মাননা প্রদান সেন্টমার্টিনে কোস্ট গার্ডের অভিযানে বিপুল পরিমাণ সামুদ্রিক প্রবাল ও ঝিনুক উদ্ধার ঈদ ও নববর্ষের ছুটিতে চায়ের রাজ্যে পর্যটকের ঢল কক্সবাজার পর্যটনকেন্দ্রে পর্যটকদের ভিড় বর্ণাঢ্য আয়োজনে বন্ধন ২০০০ এর ঈদ পুনর্মিলনী ও পারিবারিক মিলনমেলা অনুষ্ঠিত কক্সবাজারে তীব্র যানজট : ঈদ ছুটি কাটিয়ে ফিরছে লাখো পর্যটক নববর্ষে রোদ গরম উপেক্ষা করে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে পর্যটক উন্মাদনা মির্জাগঞ্জে প্রাক্তন শিক্ষকদের সম্মাননা দিলো প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা লাখাইয়ে বর্নাঢ্য আয়োজনে পহেলা বৈশাখ বাংলা নববর্ষ উদযাপন। ঠাকুরগাঁও -২ সহ দেশবাসীকে নববর্ষের শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করেছেন সংসদ নূরুন নাহার বেগম কক্সবাজারে বর্ণাঢ্য আয়োজনে পালিত হচ্ছে পহেলা বৈশাখ মহেশখালীতে বর্ণাঢ্য মঙ্গল শোভাযাত্রার মধ্যদিয়ে পহেলা বৈশাখ উৎযাপন রামুতে ৪ বছর পর নানা কর্মসূচির মাধ্যমে বর্ষবরণ অনুষ্ঠানের উদ্বোধন

গণমাধ্যম : অভিজ্ঞ-সিনিয়রদের নীরব কান্না!

◾ নিয়ন মতিয়ুল : কিছুদিন আগে বিগবাজেটের এক হাউজ থেকে চাকরি ছাড়তে হয়েছে অভিজ্ঞ এক সাংবাদিককে। আলাপে বললেন, অনেক কষ্টে চলতি মাসের বাসাভাড়া দিয়েছি। আসছে মাসে কীভাবে দেব, ভাবতেই হাত-পা অবশ হয়ে আসছে! আগে থেকেই ডায়াবেটিস আর হাইপ্রেশারে আক্রান্ত এই সিনিয়র চাকরির জন্য দৌড়ঝাঁপ করলেও মিলছে না। শরীর ভীষণ খারাপ যাচ্ছে। রাত এলেই নীরবে দু’চোখ ভাসিয়ে দিচ্ছেন।


পেশায় দেড় দশকের বেশি পার করা আরেক সংবাদকর্মী পাঁচ মাস ধরে বেতন পাচ্ছেন না। হাউজ বদলানোর চেষ্টা করেও পারছেন না। মাস কয়েক আগে এক হাউজে সিভি দিয়ে বিব্রতকর অবস্থায় পড়েছিলেন। সাক্ষাৎকারে নির্বাহী সম্পাদক বলেছিলেন, আপনি তো বয়স্ক, চটপটে নন। আপনাকে কেন নেব বলুন? তরুণদের সঙ্গে পাল্লা দিতে পারবেন? ক্ষোভে, অপমানে তার ‘ভিক্ষা চাই না কুকুরটা সামলান’ অবস্থা।


উত্তরাঞ্চলের এক সিনিয়র হতাশ সুরে বললেন, ভাই বেতন না বাড়িয়ে বিজ্ঞাপনের চাপ বাড়ছে। সংবাদ নয়, বিজ্ঞাপন প্রতিনিধিত্ব করতে হচ্ছে এখন। টার্গেট পূরণ করতে না পারলে বেতন জোটে না। সিনিয়র হওয়ায় বড় হাউজেও নেয় না। ক্লান্তি আর হতাশা ছাড়া কিছুই নেই ভাই। দক্ষিণাঞ্চলের আরেক সিনিয়র বললেন, অভিজ্ঞতা তো আর কাজে আসছে না। নতুন ভালো হাউজ কম বেতন, সুযোগ সুবিধায় নতুনদেরই নিচ্ছে। আমরা বেকার হয়ে পড়ছি। পেশায় সম্মান যেমন নেই, পরিবেশও আগের মতো নেই।


ঢাকা আর ঢাকার বাইরে কর্মরত সিনিয়র আর অভিজ্ঞ সাংবাদিকদের অবস্থা একই রকম। নতুন বিগবাজেটের হাউজগুলোতে ব্যবস্থাপনা পর্যায়ে কিছু পদে একান্ত পরিচিত, সিন্ডিকেটভুক্তরাই সুযোগ পাচ্ছেন। অন্য পদগুলোতে কম বেতনে তরুণদের বেশি নিয়োগ দিয়ে ব্যয়ের ভারসাম্য রক্ষা করা হচ্ছে। এতে চরম ঝুঁকিতে পড়ছেন অভিজ্ঞ, সিনিয়ররা। যাদের বেশিরভাগই বেকার হয়ে পড়ছেন।


বছর বছর যে নতুন ওয়েজবোর্ড আসে তার সুবিধা পান হাতে গোনা কিছু সাংবাদিক। বাকিরা চরম অনিশ্চয়তায় জীবন যাপন করেন। বিকল্প কর্মসংস্থানের পথও তৈরি হচ্ছে না। সরকার বা সংগঠনগুলো যদি চরম ঝুঁকিতে পড়া এসব অভিজ্ঞদের পাশে না দাঁড়ায় তাহলে নীরব মানবিকবিপর্যয় ঘটবে।   


লেখক : সাংবাদিক

আরও খবর


660820eb14353-300324082547.webp
আলিয়া মাদরাসার শিক্ষাব্যবস্থা কোন পথে?

১৫ দিন ৭ ঘন্টা ৫৫ মিনিট আগে




65e00348b1b45-290224100840.webp
তারুণ্যের ভাবনায় দেশের চিত্র: আজ ও আগামী

৪৫ দিন ১৭ ঘন্টা ২৫ মিনিট আগে


65de7f7be59d3-280224063403.webp
একুশের ভাষা আন্দোলন ও মওলানা ভাসানী

৪৬ দিন ২০ ঘন্টা ৫৯ মিনিট আগে


deshchitro-65db37a1c4f3c-250224065041.webp
পিলখানা হত্যাকাণ্ডের ১৫তম বার্ষিকী।

৪৯ দিন ৮ ঘন্টা ৪৩ মিনিট আগে