রাঙামাটিতে বজ্রপাতে নারীসহ ৪ জনের মৃত্যু প্রধান শিক্ষক আবুজার গাফ্ফারীর ঘোড়ার গাড়ি করে বিদায়ী সংবর্ধনা সেন্টমার্টিনে ২৩’শ পরিবারের মধ্যে সরকারি সহায়তার চাল বিতরণ নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের সাথে নাগরিক প্লাটফর্ম ও যুব ফোরামের সংলাপ অনুষ্ঠিত সারাদেশে চলাচলকারী আন্তঃনগর ট্রেন বন্ধ থাকবে ঈদের দিন লেগেছে ঈদের আঁচ,অভয়নগরে টুংটাং শব্দে মুখরিত কামারপাড়া জয়পুরহাটে ৫ শত বছরের ঐতিহ্যবাহী ঘুড়ির মেলা মিয়ানমারে সীমান্তে নেই বিস্ফোরণের শব্দ, সরে গেছে যুদ্ধজাহাজও অনিরাপদ ঘুমধুমের টিভি টাওয়ার গরুর হাট শ্যামনগরে সুবিধাবঞ্চিত মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে 'ভাব বাংলাদেশে'র শিক্ষাবৃত্তি প্রদান টিকিট থাকা সত্ত্বেও চড়া দামে বিক্রি, বিপাকে যাত্রীরা পত্নীতলায় ভুটভুটির ধাক্কায় প্রাণ গেল এক বৃদ্ধের সেবা মুক্ত স্কাউট দলের উদ্যোগে দরিদ্র ও দুস্থ মহিলাদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ দুই শতাধিক পরিবারের মুখে হাসি ফুটালো ‘ভয়েস অব ঝিনাইগাতী’ শিকড় ঝিনাইগাতীর আয়োজনে ঈদুল আযহার পরদিন এসএসসি ও এইচএসসিতে কৃতিত্ব অর্জনকারী শিক্ষার্থীদের মধ্যে সংবর্ধনা ও পুরস্কার দেওয়া হবে সড়ক দুর্ঘটনায় শেরপুর জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান আবু তাহের গুরুতর আহত, সুস্থতার জন্য সকলের নিকট দোয়া প্রার্থী সাতক্ষীরায় ২৪১ জনকে ১৭ লাখ ৮৪ হাজার টাকার অনুদানের চেক প্রদান ঈদের ছুটিতে পর্যটক বরণে প্রস্তুত কক্সবাজার টেকনাফ সমুদ্র সৈকতে ভেসে এলো অর্ধগলিত মৃতদেহ সেন্টমার্টিনের নাগরিকদের পাশে সরকার সবসময় আছে

ডেঙ্গু রোধে উদ্যোগ নেই বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে



সরকারি হিসেব মতে রাজধানী ঢাকার পর ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মৃতের হার সবচেয়ে বেশি বরিশাল ও চট্টগ্রামে। মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ডেঙ্গু প্রতিরোধে উদ্যোগী হবার কথা বলা হলেও এখনো উদাসীন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় (ববি) প্রশাসন। প্রায় ৮ হাজার শিক্ষার্থীর এ উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নেই সচেতনতার কোনো বালাই। বরঞ্চ ডেঙ্গু ঝুঁকিতে থাকা শিক্ষার্থীরা ফুঁসছে চরম ক্ষোভে। 


ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাবে মশা নিধন ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আঙিনা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার নির্দেশ দিয়েছিল মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি)।গত সপ্তাহের বুধবার মাউশির নির্দেশনা বাস্তবায়নে কঠোর নির্দেশ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। কিন্তু আজ রোববার পুরো বিশ্ববিদ্যালয় ঘুরে কোনো সচেতনতা কার্যক্রম চোখে পরে নি ডেঙ্গু প্রতিরোধে। এমনকি বিশ্ববিদ্যালয়ের একমাত্র মেডিকেল সেন্টারে গিয়ে চোখে পরলো ডেঙ্গু ঝুঁকিতে থাকা শিক্ষার্থীদের সেবা প্রদানের অপ্রতুলতার চিত্র। 


বিশ্ববিদ্যালয়টির হলগুলোতে প্রায় তিন হাজার শিক্ষার্থী বাস করলেও কোথাও ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতামূলক কোনো পোস্টার নেই। শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে দাবি থাকলেও মশার প্রজননক্ষেত্র ধ্বংসে পুরো ক্যাম্পাসের কোথাও নেই কোনো উদ্যোগ। মেডিকেল সেন্টারে রয়েছে মাত্র দুটি বেড। ডেঙ্গু আক্রান্ত হলে শিক্ষার্থীদের দেবার জন্য সাধারণ প্যারাসিটেমল ছাড়া নেই আর কোনো ওষুধ। এসব ব্যাপার নিয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা। 


মার্কেটিং বিভাগের শিক্ষার্থী সোহাগ হোসেন  বলেন, ক্যাম্পাসের আনাচে কানাচে ময়লা - আবর্জনার যে স্তুপ হয়েছে তাতে মশার প্রজননক্ষেত্র হিসেবে উপযুক্ত পরিবেশ তৈরি হয়েছে। বর্জ্য ব্যবস্থাপনার উদ্যোগ না নেয়ায় ডেঙ্গু সহ নানাবিধ রোগে আক্রান্ত হবার সম্ভাবনা বাড়ছে। 


উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী শাওন ইসলাম  বলেন, ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতা প্রয়োজন। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে উদাসীন অবস্থান গ্রহণ করা হয়েছে বলেই মনে হচ্ছে। যতটুকু জানি বিশ্ববিদ্যালয়ের চারটি হলের আবাসিক শিক্ষার্থীরা সর্বোচ্চ ডেঙ্গু ঝুঁকিতে থাকলেও তাদেরকে নিয়ে কেউ ভাবছে না। 


ডেঙ্গু প্রতিরোধে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের ভূমিকা সম্পর্কে জানতে উপাচার্য ড. মোঃ ছাদেকুল আরেফিনের মুঠোফোনে কয়েক দফা যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি কোনো সাড়া দেন নি। মাউশি এবং শিক্ষা অধিদপ্তরের নির্দেশনা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন পেয়েছে কিনা জানতে ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার সুপ্রভাত হালদারকে মুঠোফোনে ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বার্তা দিয়েও কোনো সাড়া মেলে নি। 


তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. খোরশেদ আলম  জানান, বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস সিটি করপোরেশন এলাকার বাইরে হলেও তাদেরকে অনুরোধ করে কয়েকবার মশক নিধনের স্প্রে করা হয়েছে। ক্যাম্পাসের অভ্যন্তরীণ ডোবা - নালা এবং পানি জমে থাকার মতো জায়গা গুলো নিয়মিত পরিষ্কার করা হচ্ছে। ডেঙ্গু প্রতিরোধে আর কি কি সচেতনতামূলক পদক্ষেপ নেয়া যায় সে বিষয়েও ভাবছে প্রশাসন। 

Tag
আরও খবর